রবিবার, অক্টোবর ২, ২০২২

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

সড়ক দুর্ঘটনা

বছরে ক্ষতি ৩৪ হাজার কোটি টাকা

বাংলাদেশে প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনায় ৬৪ জন নিহত হয়। আর এই সংখ্যা বিভিন্ন দুর্ঘটনায় নিহতদের সংখ্যার মধ্যে সর্বোচ্চ? সেন্টার ফর ইনজ্যুরি প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চ বাংলাদেশ (সিআইপিআরবি)-এর জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে। Bangladesch Autodemonstration der Opposition (DW) ২০১৬ সালের তথ্য নিয়ে জরিপটি করেছে তারা।

‘বাংলাদেশ হেলথ ইনজুরি সার্ভে-২০১৬ (বিএইচআইএস) শিরোনামে এই জরিপ পরিচালনা করা হয়। প্রকল্পের পরিচালক ফারুক আহমেদ ভুইয়া বলেন, ‘‘আমরা দুর্ঘটনায় এবং আঘাতে মৃত্যু নিয়ে এই জরিপ চালিয়েছি। তাতে দেখা যায়, প্রতি বছর বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৩ হাজার ১৬৬ জন নিহত হন। আর তাতে প্রতিদিন গড়ে নিহতের সংখ্যা ৬৪ জন।
সূত্র: ডয়চে ভেলে।

২০১৬ সালের তথ্য নিয়ে করা জরিপে দেখা যায়, প্রতি বছর আত্মহত্যা কারেন ২৩ হাজার ৮৬৮ জন, পানিতে ডুবে মারা যায় ১৯ হাজার ২৪৭ জন, উচু স্থান থেকে পড়ে মারা যায় ১৫ হজার ৪৫ জন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৯ হাজার ২১০ জন এবং সরাসরি হত্যাকা-ের শিকার হন ৬ হাজার ৪৭৫ জন। এর আগে ২০০৩ সালে একটা জরিপ করা হয়েছিল। তাতে প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু (১৮ বছরের নীচে) শিশু মারা যায় ৯ জন। কিন্তু এবারের জরিপে সেই সংখ্যা ১৪ জন। প্রতিদিন ১৪ টি শিশু সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হলেও প্রাপ্ত বয়স্ক নিহত হন ৫০ জন। নিহতের হিসেবে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাপ্ত বয়স্ক নিহতের সংখ্যা সর্বোচ্চ। সড়ক দুর্ঘটনাসহ নানা অপঘাতে প্রতিদিন বাংলাদেশে ৩০০ মানুষ নিহত হন। পঙ্গু হন ৬৬০ জন।

ফারুক আহমেদ ভুইয়া জানান, সড়ক দূর্ঘটনার চিত্রই সবচেয়ে ভয়াবহ, কারণ, এতে নিহতের সংখ্যা বাড়ছে। এর কারণ জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, এর জন্য যে শুধু চালকদের বেপরোয়া ড্রাইভিংই দায়ী, তা নয়। এর পিছনে ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, সড়ক, যাত্রী ও পথচারীদের অসচেতনতা অনেকাংশে দায়ী।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, সড়ক দুর্ঘনায় প্রতি বছর বাংলাদেশের জিডিপির ২ শতাংশ ক্ষতি হয়। বাংলাদেশের জিডিপি ১৭ লাখ কোটি টাকা। তার ২ শতাংশের পরিমাণ ৩৪ হাজার কোটি টাকা। তবে এই ক্ষতি বাস্তবে আরো বেশি। তিনি আরো বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় দীর্ঘ মেয়াদে যে আর্থিক ক্ষতি হয় তা আমরা এই হিসেবের মধ্যে ধরি না। একে বিনিয়োগে ভাটা পড়ে। আতঙ্কের কারণে পর্যটনসহ নানা শিল্পে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

বছরে ৩৪ হাজার কোটি টাকার ক্ষতির মধ্যে এর হিসাব নেই। আমরা এই ক্ষতির কথা বলছি আহত বা নিহত ব্যক্তির সম্ভাব্য আয়, চিকিৎসা খরচ ও সম্পদের ক্ষতি হিসাব করে। অন্যদিকে বাংলাদেশে সাংবাদিকতা পেশায় নিযুক্তরা পেশাগত কারণেই সড়ক দূর্ঘটনার শিকার হন বেশি। কিন্তু তা নিয়ে আলাদা কোনো গবেষণা নেই? তাঁদের জন্য আলাদাভাবে কোনো চিকিৎসা বা ক্ষতিপুরণের ব্যবস্থাও নেই।

একই রকম সংবাদ সমূহ

‘ভোমরা স্থলবন্দরকে পূর্ণাঙ্গ বন্দর করা হবে’ : নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দর উন্নয়ন ও পরিচালনা গতিশীলতা আনয়নের নিমিত্ত গঠিতবিস্তারিত পড়ুন

টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী

টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচি একটিবিস্তারিত পড়ুন

সর্বজনীন স্বাস্থ্য কর্মসূচির অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার আহ্বান

জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্কে এসেবিস্তারিত পড়ুন

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় যুক্ত হচ্ছে চীন
  • ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান-মেম্বারদের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি ‘গুজব’
  • বাংলাদেশের নর্দান ইউনিভার্সিটি ও কানাডার কর্টলার ইন্টারন্যাশন্যাল, রেসিন্ট ইন্টারন্যাশন্যালের মধ্যে সমঝোতা চুক্তি
  • চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭টি পদক লাভ
  • ড. কালাম ‘এক্সিলেন্স এওয়ার্ড’ গ্রহণ করেই দেশবাসীকে উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • তৃণমূল থেকে সংগঠনকে গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
  • মোবাইল ছিনতায়কারীকে দৌড়ে ধরলেন ম্যাজিস্ট্রেট
  • কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শোভন-রাব্বানির ভাগ্য নির্ধারণ
  • পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
  • পুলিশের ব্যাংকের যাত্রা শুরু
  • বিএনপি অর্থ-সম্পদ অর্জনে বেশি ব্যস্ত ছিল: প্রধানমন্ত্রী