শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

প্রবীণ রাজনীতিক সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত আর নেই

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য, বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের আইন, বিচার ও সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত আর নেই।

রাজধানীতে ল্যাডএইড হাসপাতালে তিনি আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ০৫ ফেব্রুয়ারি ভোরের দিকে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ব্যক্তিগত সহকারী কামরুল হক মিডিয়াকে জানান, রাত পৌনে চারটার দিকে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। তখন চিকিৎ​সকেরা হাসপাতালে ছুটে আসেন। শেষ পর্যন্ত ৪টা ২৪ মিনিটে চিকিৎ​সকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত গত বৃহস্পতিবার অসুস্থবোধ করছিলেন। গত শুক্রবার সকালে তাকে ল্যাব এইডে ভর্তি করা হয়। তার ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় তার অবস্থার অবনতি হয়। রাত নয়টার দিকে তাকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়।

প্রবীন রাজনীতিক সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ব্যক্তিগত সহকারী কামরুল ইসলাম মিডিয়াকে বলেন, প্রয়াত নেতার নির্বাচনী এলাকা সুনামগঞ্জের দিরাইতে আগামীকাল শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে। তিনি স্ত্রী ও এক সন্তান রেখে গেছেন।

দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। অভিজ্ঞ পার্লামেন্টারিয়ান হিসেবে সুখ্যাতি পাওয়া সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত রাজনৈতিক জীবনের শুরুতে বামধারার রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগে যোদান করেন এবং দলটির প্রথম সারির অন্যতম নেতা হিসেবে পরিগণিত হন।

অভিজ্ঞ পার্লামেন্টারিয়ান সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত মোট সাতবার সুনামগঞ্জের একটি আসন থেকে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ছিলেন বাংলাদেশের সংবিধান প্রণয়ন কমিটির অন্যতম সদস্য। মুক্তিযুদ্ধের পর স্বাধীন বাংলাদেশের এই সংবিধান প্রণয়ন কমিটির একজন কনিষ্ঠ সদস্য ছিলেন তিনি।

বনার্ঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ১৯৯৬ সালে দীর্ঘ ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে তাকে প্রধানমন্ত্রী সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টার দায়িত্ব দেয়া হয়।

২০০৮ সালের নির্বাচনে বিপুল জয়লাভ করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার কিছুদিন পর তাকে রেলমন্ত্রী করা হয়। পরে তার এক সহকারীর অর্থ কেলেঙ্কারির জের ধরে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন তিনি।

সকাল সাড়ে সাতটার দিকে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। তিনি আমাদের রাজনৈতিক ইতিহাসে এক বর্ণাঢ্য ব্যক্তিত্ব। পার্লামেন্টারিয়ান হিসেবে তিনি নাম্বার ওয়ান বলে আমার মনে হয়। তার মৃত্যুতে বিরাট শূন্যতা তৈরি হয়েছে। এটা সহজে পূরণ হবে—এটা মনে করার কারণ নেই। আমরা তাকে শেষবি​দায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পরিবারের সঙ্গে আলোচনা করে তার প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন ও শেষকৃত্যের সময়সূচি চূড়ান্ত করা হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের জানান, সকাল নয়টায় তার মরদেহ ঢাকার বাসভবন জিগাতলায় নেওয়া হবে। দুপুর ১২টায় মরদেহ নেওয়া হবে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে। বেলা তিনটায় মরদেহ নেওয়া হবে সংসদ ভবনে। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে। এরপর সংসদে ‘অবিচুয়ারি রেফারেন্স’ হবে। আগামীকাল ০৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকাল নয়টায় মরদেহ যাবে সিলেটে। সকাল ১০টায় সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করা ​হবে। বেলা ১১টায় মরদেহ যাবে সুনামগঞ্জ। এরপর সেখান থেকে মরদেহ তার নির্বাচিত এলাকা দিরাই ও শাল্লাতে নেওয়া হবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের জন্ম ১৯৪৬ সালে, সুনামগঞ্জের আনোয়ারাপুরে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ (অনার্স) ও এমএ করেন। সেন্ট্রাল ল’ কলেজ থেকে এলএলবি করার পর আইন পেশায় যুক্ত হন সুরঞ্জিত। তিনি সুপ্রিম কোর্ট বার কাউন্সিলের একজন সদস্য। ষাটের দশকে রাজনীতি শুরু করেন এই বর্ষীয়ান নেতা। গত চার দশকে মোট সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

চন্দন কাঠের চিতায় শেষ বিদায়ের ইচ্ছা ছিল সুরঞ্জিতের

আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তর শেষ ইচ্ছা ছিল চন্দন কাঠের চিতায় তার দাহ করার। এমনটাই জানিয়েছেন তার মাসতুতো (খালাতো) ভাই জয়ন্ত সেন।

তিনি বলেন, তার (সুরঞ্জিত) শেষ ইচ্ছা ছিল চন্দন কাঠ দিয়ে যেন তাকে দাহ করা হয়। এখন তো এ কাঠ খুব একটা পাওয়া যায় না। তবে সংগ্রহের চেষ্টা চলছে।

বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) হৃদযন্ত্রের সমস্যা নিয়ে ল্যাবএইড কার্ডিয়াক হাসপাতালে ভর্তি হন সুরঞ্জিত। তিনি হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. বরেণ চক্রবর্তীর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯টার দিকে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। সুরঞ্জিত সেনগুপ্তর চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা ডা. বরেণ চক্রবর্তী জানান, লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় শনিবার রাত সোয়া ১০টার দিকে তার হার্টবিট ছিল না। চিকিৎসকদের চেষ্টায় পুনরায় হার্টবিট ফিরে আসলেও তার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হয়ে পড়ে। রবিবার ভোররাতে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭১ বছর।

সুরঞ্জিতের শেষকৃত্য সোমবার

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত মারা গেছেন। রোববার ভোর ৪টা ২৪ মিনিটে রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
রোববার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, আমরা একজন বিশিষ্ট পার্লামেন্টারিয়ানকে হারিয়েছি।
সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পারিবার সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সুনামগঞ্জে তার গ্রামের বাড়িতে শেষকৃত্য হবে।
রোববার সকাল ৯ টায় হাসপাতাল থেকে জিগাতলার বাসায় নেয়া হয়। বেলা ১২টায় শেষ শ্রদ্ধা জানাতে তার মরদেহ নেয়া হয় ঢাকেশ্বরী মন্দিরে। সেখান থেকে বিকেল ৩টার দিকে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় নেয়া হবে। সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী ও এমপিরা। সংসদ ভবন থেকে তার মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে ঢাকা মেডিকেলে।
এরপর সোমবার সকাল ১০টায় তার মরদেহ নেয়া হবে সিলেটে। সিলেট থেকে তাকে সুনামগঞ্জে তার নির্বাচনী এলাকা শাল্লা, সেখান থেকে দিরাইয়ে নেয়া হবে। দিরাইয়ে সোমবার তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।
শুক্রবার ফুসফুসের সমস্যার কারণে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। শনিবার রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় তাকে প্রথমে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নেয়া হয়। পরে রাতেই তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়।

একই রকম সংবাদ সমূহ

‘ভোমরা স্থলবন্দরকে পূর্ণাঙ্গ বন্দর করা হবে’ : নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দর উন্নয়ন ও পরিচালনা গতিশীলতা আনয়নের নিমিত্ত গঠিতবিস্তারিত পড়ুন

টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী

টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচি একটিবিস্তারিত পড়ুন

সর্বজনীন স্বাস্থ্য কর্মসূচির অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার আহ্বান

জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্কে এসেবিস্তারিত পড়ুন

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় যুক্ত হচ্ছে চীন
  • ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান-মেম্বারদের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি ‘গুজব’
  • বাংলাদেশের নর্দান ইউনিভার্সিটি ও কানাডার কর্টলার ইন্টারন্যাশন্যাল, রেসিন্ট ইন্টারন্যাশন্যালের মধ্যে সমঝোতা চুক্তি
  • চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭টি পদক লাভ
  • ড. কালাম ‘এক্সিলেন্স এওয়ার্ড’ গ্রহণ করেই দেশবাসীকে উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • তৃণমূল থেকে সংগঠনকে গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
  • মোবাইল ছিনতায়কারীকে দৌড়ে ধরলেন ম্যাজিস্ট্রেট
  • কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শোভন-রাব্বানির ভাগ্য নির্ধারণ
  • পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
  • পুলিশের ব্যাংকের যাত্রা শুরু
  • বিএনপি অর্থ-সম্পদ অর্জনে বেশি ব্যস্ত ছিল: প্রধানমন্ত্রী