সোমবার, অক্টোবর ৩, ২০২২

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

সক্ষমতা নেই বিএনপির তবু আন্দোলনের হুমকি

জাতীয় কমিটির হরতালে সমর্থন বিএনপির

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র বাতিলের দাবিতে ২৬ জানুয়ারি তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ডাকা অর্ধ দিবস হরতালে সমর্থন দিয়েছে বিএনপি।

রোববার দুপুরে নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে হরতালে সমর্থন জ্ঞাপন করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

রিজভী বলেন, তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা কমিটির ডাকা অর্ধ দিবস (সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা) হরতালে দেশের মানুষের স্বার্থে বিএনপি সমর্থন ঘোষণা করছে।

সক্ষমতা নেই বিএনপির তবু আন্দোলনের হুমকি

প্রত্যাশা অনুযায়ী নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করা না হলে বিএনপি নেতারা একের পর এক ‘গণআন্দোলন’-এর হুমকি দিলেও বিশ্লেষকরা বলছেন- বিএনপির আবারো রাজপথে ফেরা কঠিন।

বিএনপি নেতারা বলছেন, ফেব্রুয়ারিতে নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রক্রিয়া শেষ হলেই পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে রাজপথে সক্রিয় হবেন তারা, প্রয়োজনে গণআন্দোলন। তবে সাম্প্রতিক সময়ে রাজপথে দলটির নড়বড়ে অবস্থান এবং ঘোষিত কর্মসূচি বাস্তবায়নের সক্ষমতা দেখে বিশ্লেষকরা মনে করেন- সবই নেতাদের ফাঁকা আওয়াজ।

অবশ্য আন্দোলনে ফেরা যে কঠিন তা অস্বীকার করছেন না দলটির নীতি নির্ধারকরাও। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে (অব.) মাহবুবুর রহমান মানবকণ্ঠকে বলেন, আমাদের দলে মনোবলের অভাব দেখা দিয়েছে। যার কারণে বিশাল কর্মি-সর্মথক থাকার পরও আমরা একটি কার্যকর আন্দোলন গড়ে তুলতে পারছি না।
আমি মনে করি, যারা সিনিয়র নেতা হিসেবে দলে দায়িত্ব পালন করছি আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে নেতাকর্মীদের মনোবল ফিরিয়ে আনা। নেতারা সবাই একযোগে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করলে কর্মি-সর্মথকরা তাদের মনোবল ফিরে পাবে এবং আন্দোলনও গড়ে উঠবে।

অবশ্য পর্যবেক্ষণ বলে ভিন্ন কথা। আন্দোলনের পথে বিএনপির সবচেয়ে বড় বাধা নেতারা কর্মসূচি পালনে ঝুঁকি নেন না। কর্মসূচি ঘোষণা হলেই তৃণমূল পর্যায়ের কর্মীরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। ফলে তৃণমূল নেতাকর্মীরাও ধীরে ধীরে নিজেদের গুটিয়ে নিচ্ছেন। দেখা গেছে. বিগত আড়াই বছর ধরে সরকারবিরোধী কর্মসূচি তো দূরের কথা ইস্যু বা দিবস-ভিত্তিক সাদামাটা কর্মসূচিও সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে পারেনি এসব কারণে। প্রশাসনের অনুমতির বাইরে কোনো কর্মসূচিই বাস্তবায়ন করতে পারেনি বিএনপি।

আন্দোলনের সক্ষমতা নিয়ে দুর্বলতার কথা স্বীকার করে বিএনপির একাধিক নীতি নির্ধারক বলেন, আমাদের নিজেদের সাংগঠনিক দুর্বলতাও রয়েছে। তবে এটাও ভেবে দেখতে হবে, একটি গণতান্ত্রিক সরকারের অধীনে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো যতটা রাজনীতি করার সুযোগ পায় আমরা তা পাচ্ছি না। সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে বারবার বিরোধী রাজনৈতিক শক্তি নির্মূলে ব্যবহার করছে। আমাদের নেতাকর্মীদের ‘গুম করা হয়েছে’। শত শত মামলা নিয়ে আমাদের নেতাকর্মীরা বাড়িতে থাকতে পারছে না। এমন পরিস্থিতিতে রাজপথের আন্দোলন করাটা কঠিন চ্যালেঞ্জ।

বিএনপির নেতারা মনে করেন, পরিস্থিতি যাই হোক নির্বাচন কমিশন নিয়ে তাদের প্রত্যাশা পূরণ নাহলে আন্দোলনে যাওয়া ছাড়া তাদের সামনে আর কোনো পথ নেই। নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির ভূমিকা পর্যালোচনা করে তারা করণীয় নির্ধারণ করবেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপ ব্যর্থ হলে দেশের মানুষের আন্দোলন করা ছাড়া বিকল্প থাকবে না। তিনি বলেন, সে ক্ষেত্রে আন্দোলনের মধ্যেই এ সমস্যার সমাধান আনতে হবে।

একই ধরনের আভাস দিয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, জনগণের প্রত্যাশা অনুযায়ী যদি নির্বাচন কমিশন গঠন না হয়, তাহলে বোঝা যাবে যে, এই সরকার আগের খেলায় রয়েছে। আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, সরকারের ওই রকম পরিকল্পনা বা খায়েশ থাকলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই আমরা রাস্তায় নামব।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ বলেন, একতরফা যদি নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়, সংলাপ-সমঝোতার পথ বন্ধ করা হয়- রাজপথেই আমাদের সমাধান খুঁজতে হবে। গণআন্দোলন গঠে তোলা ছাড়া আমাদের বিকল্প নেই।

বিএনপির একটি সূত্র জানায়, বিএনপি ভবিষ্যৎ জাতীয় নির্বাচনকে প্রাধান্য দিয়েই তার রাজনৈতিক কর্ম কৌশল নির্ধারণ করবে। সেক্ষেত্রে একদিকে যেমন আন্দোলনের প্রস্তুতিও থাকবে তেমনি থাকবে নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রস্তুতি। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো ক্ষমতাসীনদের নির্বাচনে মাঠে ফাঁকা গোল দেয়ার সুযোগ দেবে না দলটি। যে কোনো মূল্যে আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি নেতারা অংশ নিতে চান। ইতিমধ্যে বিএনপি নির্বাচনকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি থেকে সরে এসে নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকারের দাবি করছে।

আগামী ফেব্রুয়ারি মাসেই বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। ইতিমধ্যে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনের রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ বিভিন্ন রাজনৈতিকদলের সঙ্গে সংলাপ শেষ করেছেন। গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দলটির একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সংলাপের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি সংলাপ শুরু করেছিলেন। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে অংশ নেয়ার আগেই বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া ১৩ দফা প্রস্তাবনা তুলে ধরে নতুন নির্বাচন গঠনে তার রূপরেখা তুলে ধরেছিলেন। রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শেষে রাষ্ট্রপতি নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া শুরু করছেন।

এদিকে ভবিষ্যৎ আন্দোলন কর্মসূচিকে সামনে রেখে দল ও অঙ্গসংগঠন পুনর্গঠনের প্রক্রিয়ায়ও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বিএনপি। দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটি গঠনের পর অঙ্গসংগঠনগুলোকেও ঢেলে সাজানো হচ্ছে। জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক, মহিলা দলের পর যুবদলের নতুন কেন্দ্রীয় কমিটিও ঘোষণা করা হয়েছে। জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস)-এর নতুন কমিটিও ঘোষণা করা হয়েছে। কিশোরগঞ্জ, জামালপুরসহ বেশ কয়েকটি জেলা কমিটিও নতুন করে গঠন করেছে বিএনপি।

একই রকম সংবাদ সমূহ

ট্রাম্পের হয়ে প্রচারণা চালানো মোদি’র তা ভারতের পররাষ্ট্রনীতির পরিপন্থী

২০২০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ডবিস্তারিত পড়ুন

ছাত্রদলের কাউন্সিল: ৮ভোটে হেরে গেলেন কেশবপুরের সেই শ্রাবণ

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কাউন্সিলে সভাপতি পদে মাত্র ৮ ভোটে হেরে গেছেনবিস্তারিত পড়ুন

ছাত্রদলের নতুন সভাপতি খোকন, সম্পাদক শ্যামল

কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে নতুন নেতৃত্ব পেল বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল।বিস্তারিত পড়ুন

  • প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭টি পদক লাভ
  • ড. কালাম ‘এক্সিলেন্স এওয়ার্ড’ গ্রহণ করেই দেশবাসীকে উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • শোভন-রাব্বানী বাদ, ছাত্রলীগের নেতৃত্বে জয় ও লেখক
  • শোভন-রাব্বানীকে পদত্যাগের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর
  • তৃণমূল থেকে সংগঠনকে গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
  • কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শোভন-রাব্বানির ভাগ্য নির্ধারণ
  • পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
  • বিএনপি অর্থ-সম্পদ অর্জনে বেশি ব্যস্ত ছিল: প্রধানমন্ত্রী
  • বিশ্বের শীর্ষ নারী নেতৃত্বের তালিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
  • আগুন নিয়ে খেলতে বারণ করলেন শামীম ওসমান
  • ৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিদ্রোহী প্রার্থীদের চিঠি দেয়া হবে : ওবায়দুল কাদের
  • মইনুল হোসেন ফের কারাগারে