রবিবার, জুলাই ১৪, ২০২৪

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

ইউএনও’র নিকট অভিযোগ

কলারোয়ায় অসহায় বৃদ্ধের বয়স্কভাতার টাকা আত্মসাত করলেন ইউপি সদস্য!

কলারোয়ার কেরালকাতা ইউনিয়নের এক অসহায় হতদরিদ্র বৃদ্ধের বয়স্ক ভাতার ৬হাজার (ছয় হাজার) টাকা উঠিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে সেখানকার এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগও দিয়েছেন ভুক্তভোগি ওই বৃদ্ধ ব্যক্তি।

খবর পেয়ে সরেজমিনে গিয়ে কথা হলো কেরালকাতা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কোমরপুর গ্রামের বৃদ্ধ মতিয়ার রহমানের সাথে। কান্না জড়িত কন্ঠে মতিয়ার রহমান বলেন-‘আমি একজন নি:সন্তান অসহায় ব্যক্তি, আমার ভিটেবাড়ির ১ শতক জমি ছাড়া আর কিছুই নাই। আমার বয়স্ক ভাতার ১লা জুলাই ’১৬ হতে ৩০ জুন ’১৭ পর্যন্ত এক বছরের ৬হাজার টাকা সব উঠাইয়া আত্মসাত করছেন আব্দুর রশিদ মেম্বর। শুধু আমার নয় আরো অনেকের টাকা এভাবে আত্মসাৎ করেছে বলে শুনেছি।’

আর এ বিষয়ে ২৩ নভেম্বর ’১৭ তারিখে মতিয়ার রহমান স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীনের নিকট ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগে আত্মসাৎকৃত ৬হাজার টাকা আদায়সহ ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কামনা করেছেন বাদী মতিয়ার রহমান।

তিনি জানান- ‘ইউপি সদস্য প্রতিস্থাপিত বয়স্ক ভাতার বইটি উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর হতে সংগ্রহ করে জুন’১৭ মাসের কোন একদিন। বইটি মতিয়ার রহমানকে না দিয়ে কৌশলে নিজের কাছে রেখে দেন ইউপি সদস্য। গত ০৯/৮/১৭ইং তারিখে মতিয়ারকে না জানিয়ে সোনালী ব্যাংক কলারোয়া শাখা হতে উল্লেখিত ৬হাজার টাকা উত্তোলন করে বইটি আবারও ইউপি সদস্য নিজের কাছে রেখে দেন।

পরবর্তিতে প্রতিস্থাপিত কার্ডের দ্বিতীয় কিস্তির টাকা (জুলাই-সেপ্টেম্বর’১৭) দেয়ার তারিখে (১৪ নভেম্বর) মেম্বর বৃদ্ধ মতিয়ার রহমানকে বলেন যে, তোমার বয়স্ক ভাতার কার্ড হয়ে গেছে, আমার সাথে কলারোয়ায় ব্যাংকে যেতে হবে টাকা আনতে। সেই কথা মতো ব্যাংককে যায় বৃদ্ধ মতিয়ার। এবং যথারীতি নিজ বইতে এবং ব্যাংকের কপিতে টিপ সহি দিয়ে ১৫০০ (পনের শত) টাকা উত্তোলন করেন ইউপি সদস্যের সাহায্যে।
এবার টাকা এবং বই বুঝিয়ে দিয়ে করোর সাথে কিছু না বলার পরামর্শ দিয়ে বাড়িতে চলে যেতে বলেন ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ। বাড়িতে গিয়ে বই খুলে দেখতে পান এই দৃশ্য। গ্রামের অনেকের সাথে এটা নিয়ে আলোচনা করে সর্বশেষ তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের শরনাপন্ন হন আত্মসাৎকৃত টাকা ফেরত পাওয়ার আশায়।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্যের বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরা পারভীন সাংবাদিকদের জানান- ‘এ বিষয়ে তিনি একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

একই রকম সংবাদ সমূহ

১৪ জুলাই: যবিপ্রবির ল্যাবে সাতক্ষীরা জেলার ৩০ জন করোনা পজিটিভ!

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টারে ১৪ জুলাই,২০২০বিস্তারিত পড়ুন

‘প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে সরকার কাজ করছে’: লুৎফুল্লাহ এমপি

সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য এড.মুস্তফা লুৎফুল্লাহ বলেছেন- ‘করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবেও উন্নয়নবিস্তারিত পড়ুন

কলারোয়ার দমদম বাজার মার্কেটের বহুতল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন

কলারোয়ার দমদম বাজার মার্কেটের বহুতল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করা হয়েছে।বিস্তারিত পড়ুন

  • কলারোয়ায় বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমন
  • কলারোয়ায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার
  • কলারোয়ায় ‘মিনা দিবস’ উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা
  • কলারোয়ায় ভ্রাম্যমান আদালতে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
  • কলারোয়ায় দলীলি সম্পত্তি জবরদখল ঠেকাতে সংবাদ সম্মেলন
  • ‘ভূয়া’ সংবাদিকদের দৌরাত্মে সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে
  • কলারোয়ার বেত্রবতী হাইস্কুলে ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে জানি’ শীর্ষক স্মৃতিচারণ
  • কলারোয়ায় মন্দিরে মন্দিরে দূর্গাদেবীর আবির্ভাব ঘটাতে চলছে রং-তুলির আচঁড়
  • কলারোয়ার জয়নগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির আহবায়ক কমিটি গঠন
  • সংবাদ প্রকাশের পর আপডেট হলো কলারোয়া প্রশাসনের সরকারি ওয়েবসাইটের তথ্য
  • কলারোয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সভা অনু্ষ্ঠিত
  • কলারোয়ায় ১নং সীমান্ত পিলার এলাকা পরিদর্শনে ভূমি দপ্তরের বাংলাদেশ-ভারত শীর্ষ কর্তারা