বুধবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২২

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

ধানমন্ডিস্থ কার্যালয়ে আকস্মিক সফরে প্রধানমন্ত্রী

‘আওয়ামী লীগের শক্তি সততার শক্তি’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সরকারের বাকি সময়টুকুকে আরো চ্যালেঞ্জিং উল্লেখ করে সরকারের উন্নয়ন কাজগুলো সম্পন্ন করার জন্য দলের নেতা-কর্মীদের আরো আন্তরিক হওয়ার আহবান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ৩য় বছর শেষ করে আবার ৪র্থ বছরের কাজ শুরু করেছি।

কাজেই এখনকার পথটা আরো কঠিন পথ। আমাদের যেই কাজগুলি রয়েছে সেগুলি শেষ করতে হবে। যাতে দেশের মানুষ ভাল থাকে। ’
আওয়ামী লীগের শক্তি সততার শক্তি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী এ সময় পদ্মা সেতু নির্মাণে নিজস্ব উদ্যোগ গ্রহণে সারাবিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে বলেও অভিমত ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এতে একদিকে যেমন আমরা পরনির্ভরশীলতা কাটিয়ে উঠতে পেরেছি তেমনি অন্যান্য দেশগুলোও আমাদের এই উদ্যোগ দেখে খরস্রোতা নদীর উপর সেতু নির্মাণে সাহসী হয়ে উঠতে পারে। আগে খরস্রোতা নদীর ওপর অনেকেই সেতু করতে চাইত না বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

শেখ হাসিনা শনিবার বিকেলে দলের ধানমন্ডিস্থ কার্যালয়ে এক আকস্মিক সফরে এসে দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে মত বিনিময়কালে একথা বলেন।

আওয়ামী লীগের কর্মীদের একটা কথা মনে সবসময় মনে রাখতে হবে। দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। এই কথা আর চিন্তাটা একজন রাজনীতিবিদের মাথায় থাকলে যে কোন সাফল্য সে আনতে পারে বলেই আমি বিশ্বাস করি।
তিনি বলেন, ‘আমি আমার বাবাকে দেখেছি বাবার কাছ থেকে শিখেছি, মাকে দেখেও শিখেছি। ’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার মাকেও দেখেছি মায়ের যে ত্যাগ কিন্তু কখনই তিনি কোন জিনিষের জন্য আফসোস করেননি। বরং এই দলের জন্য তিনি নিজের গহনাটি পর্যন্ত বিক্রি করেছেন। সব সময়ই আমার বাবার পাশেপাশে তিনি থেকেছেন। প্রতিটি কাজে তিনি সহযোগিতা করেছেন। কাজেই আমিওতো সেই পরিবার থেকেই এসেছি। আমাদের কাজই হচ্ছে দেশের মানুষের জন্য কাজ করা।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী দুদিন আগেই ১১ জানুয়ারি অতিক্রান্ত হবার প্রসংগ উল্লেখ করে বলেন, সে সময়ে সরকারি দলে যারা দুদিন আগেও ছিল, ভুরি ভুরি দুর্নীতির অভিযোগ যাদের বিরুদ্ধে, তাদেরকে বাদ দিয়ে আমাকেই আগে গ্রেপ্তার করা হলো। আমরা দেশের স্বাধীনতা এনেছি। অথচ দেখা যায় আঘাতটা সবসময় আমাদের ওপরই আগে আসে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যাক সেই দুর্দিন কেটে গেছে। আমরা আলোর পথে যাত্রা শুরু করেছি। তবে, আমাদের পুরনো দিনের কথাও মনে রাখতে হবে এবং দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যেতে হবে।

একই রকম সংবাদ সমূহ

‘ভোমরা স্থলবন্দরকে পূর্ণাঙ্গ বন্দর করা হবে’ : নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

সাতক্ষীরা ভোমরা স্থলবন্দর উন্নয়ন ও পরিচালনা গতিশীলতা আনয়নের নিমিত্ত গঠিতবিস্তারিত পড়ুন

টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী

টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচি একটিবিস্তারিত পড়ুন

সর্বজনীন স্বাস্থ্য কর্মসূচির অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার আহ্বান

জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউ ইয়র্কে এসেবিস্তারিত পড়ুন

  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় যুক্ত হচ্ছে চীন
  • ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান-মেম্বারদের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি ‘গুজব’
  • বাংলাদেশের নর্দান ইউনিভার্সিটি ও কানাডার কর্টলার ইন্টারন্যাশন্যাল, রেসিন্ট ইন্টারন্যাশন্যালের মধ্যে সমঝোতা চুক্তি
  • চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৭টি পদক লাভ
  • ড. কালাম ‘এক্সিলেন্স এওয়ার্ড’ গ্রহণ করেই দেশবাসীকে উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • তৃণমূল থেকে সংগঠনকে গড়ে তুলতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
  • মোবাইল ছিনতায়কারীকে দৌড়ে ধরলেন ম্যাজিস্ট্রেট
  • কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শোভন-রাব্বানির ভাগ্য নির্ধারণ
  • পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
  • পুলিশের ব্যাংকের যাত্রা শুরু
  • বিএনপি অর্থ-সম্পদ অর্জনে বেশি ব্যস্ত ছিল: প্রধানমন্ত্রী