বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২০

কলারোয়া নিউজ

প্রধান ম্যেনু

সাতক্ষীরার সর্বাধুনিক অনলাইন পত্রিকা

আরো খবর....

নড়াইলে ভাইস চেয়ারম্যানের জামিন ও রিমান্ড না মঞ্জুর

নড়াইল সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহামুধ তুফানের রিমান্ড ও জামিন না মঞ্জুর করেন বিজ্ঞ আদালত। নড়াইল শহরের পুরাতন বাসটার্মিনাল এলাকায় পুলিশের সাথে তোফায়েল মাহামুদ তুফানের মারপিটের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ করেন পুলিশ কর্মকর্ত টিআই মনিরুজ্জামান।

নড়াইল পুরাতন টার্মিনালে এ ঘটনায়, হামলায় মারাত্মক আহত পুলিশ কর্মকর্তা টিআই মনিরুজ্জামানকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

একই সাথে আহত ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট শাহাজালাল, এটিএসআই সারোয়ার ও বাশিউর সহ কনস্টেবলদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। গত রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে নড়াইল পুরাতন টার্মিনালে এ ঘটনায়, হামলায় মারাত্মক আহত পুলিশ কর্মকর্তা টিআই মনিরুজ্জামানকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একই সাথে আহত ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট শাহাজালাল, এটিএসআই সারোয়ার ও বাশিউর সহ কনস্টেবলদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আহত পুলিশ কর্মকর্তা টিআই (টাউন ইনসপেক্টর) মনিরুজ্জামান জানান, নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার)’র নির্দেশনায় নড়াইল সদর থানা পুলিশ ও ট্রাফিক বিভাগ যৌথ ভাবে যানবাহনের কাগজপত্র চেক করছিলেন। একটি কাগজপত্র বিহীন মোটর সাইকেল ছেড়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল মাহমুদ তুফান। তার সুপারিশ না রাখায় তিনি একদল উচ্ছৃংখল যুবকদের নিয়ে শহরের পুরাতন বাসটার্মিনাল এলাকায় দ্বায়িত্বরত পুলিশদের উপর হামলা চালান।

পুলিশ কর্মকর্তা শাকিল জানান, হামলাকারিরা লাঠি ও রান্না করার চলা দিয়ে পিটিয়ে পুলিশদের রক্তাক্ত জখম করে। ঘটনার পরপরই পুলিশ হামলাকারি সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তোফায়েল মাহমুদ তুফানকে থানায় নিয়ে যায়।

আহত পুলিশ কর্মকর্তা টিআই (টাউন ইনসপেক্টর) মনিরুজ্জামান জানান, ভাইস চেয়ারম্যান তুফানের রিমান্ড ও জামিন না মঞ্জুর করেন, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসি বিজ্ঞ আদালত।

নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: ইলিয়াস হোসেন (পিপি’ম) জানান, এ ঘটনায় ৯জনের নাম উল্লেখ করে পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) বলেন, আইনের উর্দ্ধে কেউ নয়। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তোফায়েল মাহমুদ তোফানসহ ৩জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেফতারের জোর চেষ্টা চলছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা এ প্রতিনিধিকে বলেন, সরকারি দায়িত্ব পালনকালে অতর্কিত এ হামলাকে কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। খোদ আইন-শৃংখলা বাহিনীর কর্মকর্তাসহ সদস্যদের মারপিটের ঘটনার পর থেকে অনেক পুলিশ সদস্যই নিরাপত্তাহীনতা বোধ করছেন।

প্রকাশ না করার শর্তে বেশ কয়েকজন সিনিয়র আওয়ামীলীগ নেতা এ প্রতিনিধিকে বলেন, পুলিশ জনগনের বন্ধু। সমাজের শান্তি-শৃংখলাসহ আইন-শৃংখলা রক্ষার কাজে পুলিশ বাহিনী সর্বদা নিয়োজিত থাকে। সেই পুলিশ সদস্যদের উপর হামলায় যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্তমূলক শান্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

ওয়ারেন্টের আসামী পাকড়াও

জেলা ডিবি পুলিশের হাতে নড়াইল সদর উপজেলার পাজারখালী গ্রামে। ওয়ারেন্টের আসামীর নাম রশিদ মোল্লা, তাকে নড়াইলের সাধুখালী গ্রাম এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে নড়াইল জেলা ডিবি পুলিশের এসআই ছৈয়দ জামারত আলী দিবা গত রাত ১০ টার দিকে তাকে গ্রেফতার করে।
আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায় জানান, এছাড়াও টাকা ও মোবাইল ছিনতাইকারী গ্রেফতার করেছিল এসআই ছৈয়দ জামারত আলী, তাদের বাড়ী মাগুরা সদর থানার পাটো খালি গ্রামে তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল ছিনতাই কালে ছিনতাইকারী শুভ দাস (২২) পিতা: সাগর দাস, তার বাড়ী নড়াইল পৌরসভার কুড়িগ্রাম। এসময় ডিবি পুলিশ তাকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে ছিনতাই হওয়া মোবাইল ও টাকা উদ্ধার করে থানায় সোপর্দ করা হয়।

ডিবি পুলিশের এসআই ছৈয়দ জামারত আলী বলেন, নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) সারের দিক নির্দেশোনায় ওয়ারেন্টের আসামিকে আমরা ডিবি পুলিশ অনেক কষ্টে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।

মৃত্যুর পর বাসা থেকে ৩৩ লাখ টাকা উদ্ধার

বিআরটিএ’র সহকারী পরচিালক বিলাস সরকারের বাসা থেকে উদ্ধার হয়েছে ঘুষের ৩৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। জেলা প্রশাসক তার শহরের ভাড়া বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এই টাকা উদ্ধার করেন।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, বিলাস সরকারের মৃত্যুর পর ওই বাড়ি প্রশাসন সিলগালা করে দেয়। ধারণা করা হচ্ছে তার পরিবারের দেওয়া তথ্যমতে এই অভিযান চালানো হয়। কারণ বিলাস সরকার ঝিনাইদহ কলাবাগান পাড়ার ভাড়া বাড়িতে তার বৃদ্ধা মাকে নিয়ে থাকতেন। দাম্পত্য কলহের কারণে স্ত্রী সন্তানরা এখানে থাকতেন না।
জেলা প্রশাসক গনম্ধ্যম কর্মীদের কাছে অভিযানের কথা স্বীকার করে জানান, উদ্ধারকৃত ৩৩ লাখ ২০ হাজার টাকা জব্দ করা হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে উদ্ধারকৃত এই টাকা যানবাহনের রেজিষ্ট্রেশন ও ড্রাইভিং লাইসেন্স করার নামে ঘুষ হিসেবে গ্রহন করা হয়েছিল।
সদ্য প্রয়াত ঝিনাইদহ বিআরটিএ’র সহকারী পরচিালক বিলাস সরকারের বাসা থেকে উদ্ধার হয়েছে ঘুষের ৩৩ লাখ ২০ হাজার টাকা।
উল্লেখ্য গত ১০ সেপ্টম্বর ঝিনাইদহ বিআরটিএর সহকারী পরিচালক বিলাস সরকার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ শহরের কলাবাগান পাড়ার ভাড়া বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এই টাকা উদ্ধার করেন।

একই রকম সংবাদ সমূহ

১৪ জুলাই: যবিপ্রবির ল্যাবে সাতক্ষীরা জেলার ৩০ জন করোনা পজিটিভ!

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টারে ১৪ জুলাই,২০২০বিস্তারিত পড়ুন

এনামুল-সম্রাটসহ ৪ জনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট জব্দ

ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ততা ও অবৈধ অর্থ লেনদেনের অভিযোগে সংসদবিস্তারিত পড়ুন

‘ভূয়া’ সংবাদিকদের দৌরাত্মে সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে

সংবাদপত্রকে বলা হয় সমাজের দর্পণ বা আয়না। এই আয়নায় সমাজেরবিস্তারিত পড়ুন

  • নড়াইলে শিশু মহিমা খুন ।। দাদা-দাদিসহ ৮জনের বিরুদ্ধে মামলা
  • টিকাদানের সাফল্যে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ পেলেন প্রধানমন্ত্রী
  • সর্বজনীন স্বাস্থ্য কর্মসূচির অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার আহ্বান
  • নড়াইলে ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করলেন এসপি জসিম উদ্দিন
  • এবার বাংলাদেশেও ভাঙল প্রচলিত নিয়ম, যাত্রী নিয়ে বিয়ে করতে বরের বাড়িতে কনে!
  • তবু নড়াইলের দিপালী’র মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি মেলেনি! মৃত্যুর পরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদার প্রত্যাশা
  • আইনজীবীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে সুপ্রিম কোর্টে মিন্নি
  • ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান-মেম্বারদের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়টি ‘গুজব’
  • পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ
  • নড়াইলে ইয়াবাসহ ইউএনও অফিসের সহায়ক গ্রেফতার
  • ঢাবিতে ভর্তিচ্ছুদের সহায়তায় বাগেরহাট জেলা…